Close

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার সেরা ৫টি ওয়েবসাইট

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম

আপনি কি মোবাইলে অনলাইনে আয় করার কথা ভাবছেন? এটা এখন আর তেমন কোন কঠিন কাজ নয়। একটু সময় দিলেই মোবাইল থেকে মোটামুটি একটা এমাউন্ট আয় করা সম্ভব। মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার পদ্ধতি গুলোর মধ্যে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কিছু কাজ করে টাকা আয় করার পদ্ধতিটাও বেশ জনপ্রিয়।

অনেকেই ঘরে বসে অলস সময় কাটাচ্ছেন, হাতে একটি স্মার্ট ফোন আছে! আপনারা চাইলে সেই অলস সময়টাকে টাকা আয় করার জন্য কাজে লাগাতে পারেন। মোবাইলে অনলাইনে আয় করা এখন বেশ সুযোগ করে দিয়েছে কিছু অনলাইন ইনকাম সাইট। অর্থাৎ আপনি চাইলে কিছু ছোট ছোট কাজ করে সহজেই অনলাইনে ইনকাম করতে পারেন।

আজকে আমাদের লেখাটি ঘরে বসে মোবাইলে আয় করার বিষয়ে সাজানো হয়েছে। অনেকেই আমাদের কাছে এই প্রশ্নটা করে থাকেন যে, কিভাবে মোবাইলে আয় করা যায়? আমি আজ আপনাদের কাছে কিছু অনলাইন ইনকাম সাইট নিয়ে আলোচনা করবো, যেখানে আপনি মোবাইল দিয়ে কাজ করে কিছু টাকা আয় করতে পারবেন।

মোবাইল থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?

বিভিন্ন অনলাইন ইনকাম সাইট আছে যেখানে ছোট ছোট কিছু কাজ থাকে যেমন, একাউন্ট সাইন আপ, ফেইসবুক পেইজ ফলো করা, ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করা, মোবাইল এপস ইনস্টল করা, গেম্স খেলা, ইত্যাদি, যা সম্পান্ন করে একটা ভালো এমাউন্ট আয় করা যায়।

আপনি একটি ওয়েব সাইটে কাজ করলে প্রতি দিন ২/৩ ঘন্টা সময় দিয়ে, মাসে ৫০০০-৬০০০ টাকা আয় করতে পারবেন। ঠিক এভাবে ২/৩ টা ওয়েব সাইটে কাজ করতে পারলে একটা ভালো এমাউন্ট আয় করা সম্ভব। অর্থাৎ আপনি ঘরে বসেই আপনার মোবাইল ফোন থেকে কিছু টাকা আয় করতে পারেন, যা ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয় করার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার সেরা ৫টি ওয়েবসাইট

নিম্নে মোবাইল থেকে অনলাইনে আয় করার ৫ টি গুরুত্বপূর্ণ কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

১। Hiretalents

  • পেমেন্ট মেথড- BTC Wallet
  • সর্বনিম্ন পেআউট- $6

Hiretalents হলো একটি অন্যতম ক্ষুদ্র কাজের ওয়েব সাইট। এখানে অনেক ছোট ছোট কাজ পাওয়া যায়, যার সম্পান্ন করে প্রুফ সাবমিট করার ৩/৪ দিনের মধ্যে নির্ধারিত ডলার একাউন্টে জমা হয়।

এখানে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো হলো-

  • ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ
  • ইনফ্লুয়েঞ্জার হিসেবে কাজ
  • বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে সাইন আপ করা।
  • বিভিন্ন অ্যাপ ও গেমস ইন্সটল করা।
  • ইউটিউব অ্যাকাউন্ট খোলা, চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করা ইত্যাদি আরও অনেক ধরণের কাজ।

সাধারণত, এই  ওয়েব সাইট বিটকয়েনে পেমেন্ট দিয়ে থাকে। যারা বিটকয়েন আয় করতে চান, এই ওয়েব সাইট তাদের জন্য বেশ ভূমিকা বহন করবে। আপনি যেকোন বিটিসি ওয়ালেটে টাকা উত্তলোন করতে পারবেন। যারা বিটকয়েন ব্যবসা করে টাকা আয় করতে চান, তারা এখান থেকে কাজ করে বিনিয়োগ সংগ্রহ করতে পারেন। তার পর কয়েনবেজ বা ওয়েব মানির বিটিসি ওয়ালেটে ডলার উত্তলোন করে কাজ করতে পারেন।

সঠিকভাবে কাজের বর্ণনা পড়ে কাজ সম্পান্ন করুন। প্রয়োজনীয় প্রুফ সাবমিট করার পর তাদের দেওয়া নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আপনার একাউন্টে ডলার চলে আসবে।

Register Now

২. 2Captcha

  • পেমেন্ট মেথড- Crypto Wallet
  • সর্বনিম্ন পেআউট- $1

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাইপিং জব করতে চান, তাহলে 2Captcha থেকে ক্যাপচা পাইপিং করে টাকা আয় করতে পারেন। এখানে কাজ করে প্রতি দিন 2-3 ডলার আয় করা সম্ভব। ধীরে ধীরে ক্যাপটা টাইপিং এর রেট বাড়বে এবং আয়ও বাড়বে।

এখন এন্ড্রইড ফোনের জন্য 2Captcha এর এপ্লিকেশনটি বেশ  ভালো একটি পদ্ধতি। মোবাইলে টাইপিং করে টাকা ইনকাম করতে 2Captcha এর এপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে পারেন।

Register Now

৩. Sproutgigs

  • পেমেন্ট মেথড- PayPal, Skrill, Amazon Gift Card
  • সর্বনিম্ন পেআউট- ৫ ডলার

নতুনদের জন্য এটা হলো একটি সেরা ওয়েব সাইট। যারা মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে আগ্রহী, তাহার সহজেই এখানে 2 ঘন্টা সময় কাজ করে 2-3 ডলার আয় করতে পারেন। এখানে অনেক ছোট ছোট কাজ থাকে, যা অল্প সময়ের মধ্যে করা সম্ভব। প্রতিটি কাজের জন্য 0.03$-1.00$ পর্যন্ত আয় করা যায়।

এখানে জনপ্রিয় কিছু কাজ হলো-

  • ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ
  • ইনফ্লুয়েঞ্জার হিসেবে কাজ
  • ইন্সটাগ্রাম, ফেইসবুক পেইজ ফলো করা।
  • বিভিন্ন একাউন্টে সাইন আপ করা
  • ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করা, ভিডিও লাইক করা।
  • মোবাইল এপস ইনস্টল করা।
  • মোবাইল গেমস খেলা, ইত্যাদি।

Register Now

এছাড়াও আরো অনেক কাজ রয়েছে। কাজ শেষ করে প্রুফ সাবমিট করার ৬/৭ দিনের মধ্যে আপনার একাউন্টে ডলার চলে আসবে। আপনি এই জাতীয় ওয়েব সাইটে কাজ করে মাসে ৫-১০ হাজার টাকা আয় করতে পারেন।

৪. Microworkers

  • পেমেন্ট পদ্ধতি- PayPal,  skrill, DWolla, Bank Transfer
  • সর্বনিম্ন পেমেন্ট- ৯ ডলার

মাইক্রো জব এর ওয়েব সাইটগুলোর মধ্যে Microworkers হলো সব থেকে জনপ্রিয় সাইট। তবে এটাকে ১ম নাম্বারে না দেওয়ার কারণ হলো, বর্তমানে এখানে বাংলাদেশ থেকে একাউন্টের এপ্রুভাল পাওয়ার ঝামেলার। এছাড়া আপনি যদি আমেরিকান বা ইউরোপের নাগরিক হয়ে থাকেন, তাহলে এই সাইট আপনার জন্য সব থেকে ভালো ফিডব্যাক বয়ে আনবে।

এটা বেশ বড় ও সেরা মাইক্রো জবস সাইট, যেখানে ১০ লাখের উপরে মানুষ কাজ করে। এটা Weblabcenter, Inc অধীনে একটি ফ্রিল্যান্সিং সাইট যেখানে মোবাইল থেকে কাজ করার বড় সুযোগ রয়েছে।

এখানে ২ ধরণের সদস্যা রয়েছে। যথা: ওয়ার্কার ও এমপ্লয়ার্স

ওয়ার্কারগন এখানে কাজ করে থাকে, অন্যদিকে এমপ্লয়ার্সগন তাদের কাজগুলোর অফার করে থাকে।  আপনি কাজ করে টাকা আয় করতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ওয়ার্কার হিসেবে যুক্ত হতে হবে।  এখানে সাধারণত দুই ভাবে কাজ করা যায়, সাধারন টাস্ক ও গ্রুপ জবস। আপনার সুবিধা ও দক্ষাত অনুযায়ী আপনি যেকোন কাজ করতে পারেন।

এখানে প্রথান কিছু কাজ হলো

  • গুগল অ্যাকাউন্টে ও অন্যান্য একাউন্ট সাইন আপ করা।
  • প্লে-স্টোরে গিয়ে রেটিং দেয়া।
  • বিভিন্ন গেমস ও অ্যাপ ইন্সটল করা।
  • ফেইসবুক পেইজ, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটার ফলো কর।
  • ইউটিউব অ্যাকাউন্ট খোলা সাবস্ক্রাইব করা, ভিডিও ভিউ, লাইক কমেন্ট করা ইত্যাদি আরও অনেক ধরণের কাজ।

৫. Swagbucks

  • পেমেন্ট পদ্ধতি- PayPal, Amazon Gift Cards, Walmart Gift Cards, Skrill
  • সর্বনিম্ন পেমেন্ট- ৩০ -১৫০ SB (১০০ SB = ১ ডলার)

অনলাইনে আয় করার জন্য  সেরা একটি সাইট হলো Swagbucks। এখানে কিছু সহজ কাজ করে অল্প সময়ের মধ্যেই আপনি কিছু টাকা আয় করতে পারবেন। তবে সার্ভে ভিত্তিক কাজগুলো করলে বেশি টাকা আয় করা যায়। কিন্তু সমস্যা হলো বাংলাদশে থেকে সার্ভে অফার খুব কম পাওয়া যায়।

এখানে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো হলো-

  • সার্ভে
  • কেনা কাটা
  • সার্চ
  • সাইন আপ করা
  • গেম খেলা

Register Now

সার্ভেগুলো পূরণ করতে পারলে সব থেকে ভালো আয় করা যায়। সার্ভেতে আপনার লোকেশন, বয়স, আর্থিক অবস্থা, অনলাইনে কোন পণ্য ক্রয় করেন কিনা, এই জাতীয় তথ্য জানতে চাইবে। সব কিছু সঠিকভাবে এন্ট্রি করা হলে আপনার সার্ভেটি শেষ হবে। এবং আপনি নির্ধারিত মূল্য একাউন্টে পেয়ে যাবেন।

এছাড়া আপনি সার্চ করেও টাকা আয় করতে পারেন। গুগল সার্চের মতো ওখানে সার্চ করলে প্রতি সার্চে আপনি 1 SB করে পাবেন। এভাবে 100 SB = 1 ডলার হয়।

৬. Toluna

  • পেমেন্ট পদ্ধতি- PayPal, Amazon Gifts Car
  • সর্বনিম্ন পেমেন্ট- ১২০০ – ৫০,০০০ পয়েন্ট

Toluna হলো ইউরোপের একটি অন্যতম মাইক্রোজবস ওয়েব সাইট, যেখানে মিলিয়ন মিলিয়ন ব্যবহারকারী কাজ করে থাকে। বিগত ১৭ বছর ধরে এটা ভালো সার্ভিস দিয়ে আসছে। এখানেও প্রধান আয়ের উৎস হতে পারে সার্ভে পূরণ করে আয় করা। প্রতিটি সার্ভেতে আপনি হাজার হাজার পয়েন্ট আয় করতে পারেন। এখানে ৫ হাজার পয়েন্টে ১ ইউরো হয়।

  • এখানে প্রথাম কাজগুলো হলো
  • সার্ভে করা
  • গেমস খেলা
  • প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করা
  • কমিউনিটিতে পোস্ট করা, ইত্যাদি।

এছাড়া বিভিন্ন গেম খেলা, কমিউনিটিতে পোস্ট করা, প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহন করে টাকায় আয় করা যায়। সব থেকে সহজ কাজগুলো হলো স্পন্সরদের পোলে ভোট প্রদান করা, লটারি ধরা ইত্যাদি।

সমাপণী

সঠিকভাবে চেষ্টা করলে আপনার অলস সময়টা কাজে লাগিয়ে ঘরে বসে মোবাইলে আয় করতে পারেন একটা ভালো এমাউন্ট।

উপরে আমার সংক্ষিপ্ত আকাড়ে মোবাইলে অনলাইনে আয় করার উপায় সম্পর্কে কিছু বর্ণনা ও ওয়েব সাইটের কথা উল্লেখ করেছি। পরিশ্রম ছাড়া কোন কাজই হয় না। চেষ্টা করুন, সময় দিন একটা ভালো এমাউন্ট আয় করা সম্ভব হবে। সোসাল মিডিয়ায় অযথা সময় নষ্ট না করে পরে নিন ইন্সটাগ্রম থেকে আয় করার কৌশল।

যাইহোক, কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। আপনাদের যৌক্তিক প্রতিটি কমেন্টের উত্তর দেবো। এছাড়া পোস্টটি বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!