Close

মাতৃদুগ্ধ পানের উপকারিতা | নবজাতকের সুস্থতায় মায়ের দুধ

মাতৃদুগ্ধ পানের উপকারিতা

নবজাতক শিশুর জন্য তার মায়ের দুধ একটি আদর্শ খাবার। একটি শিশু সঠিকভাবে বেড়ে ওঠার জন্য মাতৃদুগ্ধ পানের উপকারিতা অপরিসীম।

অন্যান্য যে কোন বিকল্প দুধের চেয়ে মায়ের দুধে ‍তুলনামূলক পুষ্টি পরিমানে অনেক বেশি। শিশু  বিশেষজ্ঞগণের মতে, এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়। শিশুদের শরীরের ক্যালসিয়াম এর ঘাটতি পূরনে সহায়ক মায়ের বুকের দুধ। ভিটামিন ও পরিমিত প্রোটিন এবং বুকের দুধে রোগ প্রতিরোধ উপাদান রয়েছে। এই মায়ের বুকের দুধ শিশুদের জন্য একটি আদর্শ খাবার।

শিশু বিশেষজ্ঞদের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে যে, মায়ের বুকের দুধে প্রায় ২০০ এর মতো উপাদান রয়েছে। যা বিকল্প আর কোন দুধে পাওয়া যায়না। এই বুকের দুধ শিশু কে মৃত্যুহার কমায় এবং মায়ের স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। পরিপূর্ন ভাবে শিশুদের শারীরিক বিকাশ ঘটাতে মাতৃদুগ্ধের গুনবলী আবশ্যক।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভাষ্যমতে আমরা জানি যে, জন্মের পর শিশুকে তার মায়ের বুকের দুধ খাওয়ালে মায়ের জরায়ু ক্যান্সার এর ৩ থেকে ৬০ শতাংশ এবং স্তন ক্যান্সার এর শতকরা প্রায় ২৫ শতাংশ কমে যায়। অন্য দেশের মতো আমাদের বাংলাদেশেও ১ থেকে ৭ আগস্ট বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ পালিত হয়ে থাকে। মাতৃবান্ধব কর্মস্থল সৃষ্টিরি উদ্দ্যেগে ১৯৯৩ সালের অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে। সম্প্রতি জনাকীর্ণ স্থলে হাইকোর্ট রুল জারি করেছে ব্রেস্ট ফিটিং কর্নার স্থাপনের জন্য।

কেন শালদুধ?

শিশুর জন্য শালদুধ অতিপ্রয়োজনীয় একটি খাবার। মায়ের দুধে অধিক পরিমানে ভিটামিন ও প্রোটিন থাকে। এটি শিশুর প্রথম খাবার। শিশু জন্ম নেয়ার পর মায়ের বুকে যে আঠালো ও হলুদ দুধ বের হয় তাকেই সাধারনত শাল দুধ বলা হয়।

মায়ের বুকের শালদুধ ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার হয়ে থাকে। শুধু তাই নয় শাল দুধে থাকা ইমুনোগ্লোবিন রোগ প্রতিরোধের জন্য অত্যান্ত জরুরী। শিশু জন্মের পর এই শাল দুধ জন্ডিস থেকে সুরক্ষা দেয়।

কেন মায়ের বুকের দুধ?

নবজাতকের ৬ মাস পুষ্টিচাহিদা সম্পূর্নরূপে পূরণ করে মায়ের বুকের দুগ্ধ পান করার মাধ্যমে। বুকের দুধ পুষ্টিশূন্যতা ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া এবং শিশু মৃত্যুহার কমায়। শিশুর বুদ্ধির বিকাশ ঘটায়। মায়ের বুকের দুধ শিশুদের জন্য নিঃসন্দেহে একটি আদর্শ খাবার।

শিশুকে দুধ খাওয়ালে মা’য়ের শরীর ভালো থাকবে?

মায়ের বুকের দুধ শিশুকে পান করালে মায়ের জরায়ু স্বাভাবিক আকারে ফিরিয়ে আনতে  সহায়ক এবং মায়ের স্তন ও জরায়ু ক্যান্সার এর ঝুকি কমায়।

আরও পড়ুন

জেনে নিন পা মচকানোর প্রাথমিক চিকিৎসা

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!